reader á No Shortcuts to the Top ✓ Climbing the World's 14 Highest Peaks Download ´ Ed Viesturs

Ed Viesturs ½ Climbing the World's 14 Highest Peaks doc

reader á No Shortcuts to the Top ✓ Climbing the World's 14 Highest Peaks Download ´ Ed Viesturs ↠ কাজী আনোয়ার হোসেনের ভূমিকা লাটভিয়ান ও জার্মান পিতামাতার ঘর?ির কাটখোট্টা বর্ণনা নয় এ বই স্থানে স্থানে রসালো কিছুও আছে।একবার কে টু দ্বিতীয় উচ্চতম পর্বতের চূড়ায় প্রায় পৌঁছে গিয়েও ফিরে আসতে হয়েছিল ভিশ্চার্স ও তাঁর বন্ধু স্কট ফিশারকে দুজন বিপদগ্রস্ত পর্বতারোহীকে নীচের ক্যাম্পে নামতে সাহায্য করার ডাক পেয়ে। তারপর আবার যখন উপরে উঠছেন টের পেলেন কিছুক্ষণের মধ্যেই তুষার ধস শুরু হতে চলেছে। আশ্রয় নেবেন বলে ভিশ্চার্স বরফে গর্ত খুঁড়তে শুরু করেছেন স্কট ছিলেন বেশকিছুটা উপরে। হঠাৎ ভিশ্চার্স দেখলেন সড়াৎ তাঁর পাশ কাটিয়ে চলে গেলেন স্কট নীচের দিকে। দুজন ছিলেন রশি দিয়ে পরস্পরের সঙ্গে বাঁধা ফলে রশিতে টান পড়ায় ভিশ্চার্সও চললেন পিছন পিছন। বার বার শক্ত বরফে আইস অ্যাক্স গাঁথার চেষ্টা করেও সেল্ফ্ অ্যারেস্ট করে পতন ঠেকানো যাচ্ছিল না। আর একটু নীচেই ৮০০০ ফুট খাড়া ঢাল অর্থাৎ নিশ্চিত মৃত্যু। তারপর ভাগ্যক্রমে হঠাৎ করেইভিশ্চার্সের কুঠারটা গেঁথে গেল বরফে দড়ি টান টান হয়ে গেল ঝাঁকিও লাগল খুব জোর তবে পতন ঠেকল। চিৎকার করে জানতে চাইলেন ভিশ্চার্স ‘ঠিক আছো তো?’ নীচ থেকে স্কটের আর্তনাদ ভেসে এল। চেঁচিয়ে উত্তর দিলেন তিনি। কী বললেন?পাঠক স্কটের উত্তরটা আমি এখানে বলব না পাতা উল্টে দেখে নিতে হবে আপনাকেই। কথা দিতে পারি হাসি ঠেকিয়ে রাখতে পারবেন না। বইটির বহুল প্রচার কামনা করছি। Ed Viesturs is kind of a dweeb but I have to admit he's a wor

pdf î Climbing the World's 14 Highest Peaks ½ Ed Viesturs

?ে যার যার নিজ নিজ ক্ষেত্রে অসাধ্যসাধনের প্রয়াসে।অনুবাদক নিজেও একজন পর্বতোৎসাহী ও ফিল্ম মেকার। তাই এইসব দুঃসাহসিক অভিযানের খুঁটিনাটি সবকিছু সহজ ও সুন্দরভাবে দরদের সাথে ফুটিয়ে তুলতে সক্ষম হয়েছেন। ফলে বইটি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত এক বসায় গড় গড় করে পড়ে শেষ করা যায়।প্রাচীন কাল থেকে মানুষের মধ্যে দুর্জয় দুরারোহ পর্বতের প্রতি স্বভাবজাত দুর্বার আগ্রহ ও আকর্ষণ রয়েছে। ওই উঁচু উঁচু পর্বতের মাথায় পা রেখে দাঁড়িয়ে নিজের মানবসত্তাকে গভীরভাবে উপলব্ধি করার কথা কল্পনা করলেই আমাদের বুকে শিহরন জাগে। কিন্তু বাস্তবে যাঁরা সেখানে যান তাঁদের কতটা অধ্যবসায়ের সঙ্গে নিজেকে কষ্টসহিষ্ণু করে গড়ে তুলতে হয় শারীরিক ফিটনেসেরজন্য কেমন অমানুষিক পরিশ্রম করতে হয় অদম্য সঙ্কল্প নিয়ে কীভাবে মৃত্যুর ঝুঁকি মাথায় করে বিপদের মুখে ঝাঁপ দিতে হয় সেসব বর্ণনা রয়েছে বইয়ের পাতায় পাতায়। দুঃসাধ্য এই কাজে প্রয়োজনে একে অপরকে নিঃস্বার্থ ভাবে সাহায্য করতে হয় সবসময় অন্যান্য অভিযাত্রীদের প্রতি বাড়িয়ে রাখতে হয় সাহায্যের হাত।আত্মজীবনীমূলক এই রচনায় বাঙালী পাঠকের প্রায় অপরিচিত একটা জগতের স্পষ্ট চিত্র উঠে এসেছে যা ছোট বড় সবার মন টানবে। বইটি পড়তে পড়তে মনে হয় যেন সবকিছু দেখতে পাচ্ছি চোখের সামনে। তবে কেবলই বিপদ ভয় আর মৃত্যুর ঝুঁ? While I absolutely respect Ed Viesturs not just for his accom

book No Shortcuts to the Top

No Shortcuts to the Top Climbing the World's 14 Highest Peaksকাজী আনোয়ার হোসেনের ভূমিকা লাটভিয়ান ও জার্মান পিতামাতার ঘরে ১৯৫৯ সালের ২২ জুলাই আমেরিকার ফোর্ট ওয়েইন ইন্ডিয়ানায় জন্মগ্রহণ করেন এডমান্ড ভিস্টার্স Edmund Viesturs। এড ভিশ্চার্স নামেই তিনি বেশি পরিচিত।১৮ বছরের অক্লান্ত চেষ্টায় বিখ্যাত আমেরিকান পর্বতারোহী এড ভিস্টার্স জয় করেছেন মাউন্ট এভারেস্টসহ পৃথিবীর সবচেয়ে উঁচু ১৪টি দুর্গম পর্বতচূড়া। অল্পবয়স থেকেই নিষ্ঠা ও ধৈর্যের সঙ্গে শারীরিক ও মানসিক ভাবে প্রস্তুত করেছেন তিনি নিজেকে জীবনের এই একটিমাত্র লক্ষ্য অর্জন করবেন বলে। তিনিই প্রথম মার্কিন মাউন্টেনিয়ার যিনি এভারেস্টের শৃঙ্গে আরোহণ করেছেনÑ একবারনয় সাত সাতবার। এ ছাড়াও তিনি অন্নপূর্ণা কে টু কাঞ্চনজঙ্ঘা ধবলগিরি মাকালু নাঙ্গাপর্বতের মত ৮০০০ মিটারের বেশি উঁচু সবকটি পর্বতচূড়ায় আরোহণ করেছেন এবং রেকর্ড গড়েছেন একটিতেও অক্সিজেন সাপ্লিমেন্ট ব্যবহার না করে। তাঁর বিচিত্র অভিজ্ঞতার কথা চমৎকার প্রাঞ্জল ভাষায় বর্ণনা করেছেন তিনি এই বইয়ে।বইটির ঝরঝরে সাবলীল অনুবাদ করে আমার মত অসংখ্য ঘরকুনো বাঙালীর মস্ত উপকার করেছেন বাঙালী পর্বতারোহী সজল খালেদ। এজন্য প্রশংসা তাঁর অবশ্যই প্রাপ্য। শুধু আশা করছি তা নয় আমার বিশ্বাস প্রতিটি দুঃসাহসী অভিযানপ্রিয় বাঙালীর অন্তর স্পর্শ করবে এ বই তাদেরকে উদ্বুদ্ধ কর? I got the opportunity to climb with Ed Viesturs on Rainier in